তামিমের এক হাতে ব্যাটিং নিয়ে যা বলেন মাশরাফি।

তামিমের এক হাতে ব্যাটিং নিয়ে যা বলেন মাশরাফি। এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কা  ক্রিকেট দলকে ১৩০ রানে হারিয়ে নিজের প্রথম ম্যাচ জয় দিয়ে দুর্দান্ত সূচনা করলো বাংলাদেশ।

এদিকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এমন সাফল্য দেশের প্রশংসা এখন সারা ক্রিকেট দুনিয়ায়।মাশরাফি,মুশফিক,তামিমদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ এখন নিজেদের দেশে।

এদিকে শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দেওয়া ম্যাচটিতে তামিম ইকবালের এক হাতে ব্যাটিং করা দৃশ্য এখন আলোচনার শীর্ষে।মুশফিক এর ১৪৪ রানের বিশাল ভূমিকার পাশাপাশি তামিমের কৃতিত্বও এখন সবার মুখে মুখে।

তামিমের এক হাত দিয়ে ব্যাটিং করা নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে মাশরাফি বলেন,”তুমি এক হাত দিয়ে ১৬ কোটি মানুষের মন জয় করে নিয়েছো।”

এদিকে দর্শক মহলেও বেশ প্রশংসিত তামিম ইকবাল।সকলের নিকট প্রশংসার পাত্র বাঁ হাতি এই ড্যাশিং ব্যাটিং সেনসেশন। বিশ্ব ক্রিকেটে এখন অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান এর কাতারেও তামিমের নাম।

দেশের গন্ডি পেরিয়ে তামিম ইকবাল এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খ্যাতিমান একজন ক্রিকেটার। প্রতিপক্ষের বোলারদের মূর্তিমান আতংক তামিম। সেই যুক্ত হলো দেশপ্রেম।অগাধ দেশপ্রেম না থাকলে কোন ক্রিকেটার আহত অবস্থায় এক হাতে ব্যাটিং করতে নামেনা।

শ্রীলঙ্কান বোলারদের মাটিতে মিশিয়ে ধুন্ধুমার শটের ১৪৪ রানের ইনিংসে মুশফিকুর রহিম ম্যাচের রাজা।আর তামিম ইকবাল হচ্ছে ম্যাচ জয়ের দ্বিতীয় নায়ক।

মুশফিকের চোখ বাঁধানো গ্যালারি আঁচড়ে বল পড়ার দৃশ্যের দিন টাইগার সমর্থকদের উত্তেজনার বাড়তি যোগ তামিম ইকবালের এক হাতে ব্যাটিং করে মুশফিক কে সমর্থন যোগানো। তামিমের এক হাতে ব্যাটিং নিয়ে যা বলেন মাশরাফি।

শুধুই কি এক হাতে ব্যাটিং করার কারনেই তামিম আজ প্রশংসিত?না তামিম নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন বহু ম্যাচে।এক হাতে ব্যাটিং করাটা তার অনেক গুলো সেরা পারফর্ম এর মধ্যে একটি শৈল্পিক নিদর্শন মাত্র।

আরও পড়ুনঃ বিশ্বকাপে ফেভারিট বাংলাদেশ। http://sonalikantha.com/বিশ্বকাপ-ক্রিকেটে-ফেভারি/

বাংলাদেশের দর্শক হিসেবে আগে যেখানে আমরা অস্ট্রেলিয়ার রিকি পন্টিং,গিলক্রিস্ট, পাকিস্তানের ইনজামাম,আফ্রিদির ভক্ত হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে থাকতাম।এখন আমাদের দেশের দামাল ছেলেরাই আইডল।

এখন বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রেমীদের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করতে অস্ট্রেলিয়া বা দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়ের নামের পাশে বাংলাদেশের মাশরাফি, সাকিব,তামিম,মুশফিকের নামও সমুচ্চারণ করতে হয়।কারন বাংলাদেশ এখন পরিপূর্ণ শক্তিশালী ক্রিকেট টিম।সাকিবের মত বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার আজ বাংলাদেশ টিমের খেলোয়াড়। তামিমের মত মারকুটে ব্যাটসম্যান বাংলাদেশে।

এগিয়ে যাবে বাংলাদেশের ক্রিকেট। একদিন বিশ্বকাপ জয় করবে টাইগাররা।এই প্রত্যাশা সকলের মাঝে। সেদিন হয়ত আর বেশি দূরে নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here