গোপন কোড জেনে হয়ে যান মোবাইল এক্সপার্ট।

গোপন কোড জেনে হয়ে যান মোবাইল এক্সপার্ট।  মানুষের জীবনের অপরিহার্য ্উপাদান স্মার্টফোন।এসব ফোনের নানা ফিচার জীবনপযাত্রাকে করেছে আরও সহজ ।স্মার্টফোনের সব ফিচার অনেকের অজানাই থাকে।তেমনি এসব ফোনের রয়েছে কিছু গোপন কোড,জানা থাকলে অনেক কাজে লাগে এসব কোড।

*33*# এই কোড দিলে আপনার স্মার্‌টফোন থেকে আউটগোয়িং কল ব্লক হয়ে যায়।শুধু ফোন আসবে কোনও ফোন আপনি করতে পারবে্ননা।পুনরায় চালু করতে পারেন *33*pin# এই কোড দিয়ে ।এটি আইফোনের ক্ষেত্রেও প্রযো্জ্য।

*31# আইফোন গ্রাহকরা এই কোড দিলে সমস্ত আউটগোয়িং কল গোপন থাকবে।আপ্নি যাকে ফোন করবেন সে ব্যাক্তি আপনার ফোন নম্বর দেখতে পাবেননা।এক্ষেটড়ে এন্ড্রয়েড গ্রাহকদের কোড নম্বর #৩১# কোড নম্বর।গোপন কোড জেনে হয়ে যান মোবাইল এক্সপার্ট।

#৩৩৭০# আপনার ফোনের কমিউনিকেশন খুব খারাফ?তাহলে এই কোড আপোনাকে সাহায্য করবেএই কোড ফোনের ইএফআর কোডিং ব্যাবস্থা সক্রিয় করে দেয়।ফোনের কমিউন কমিউনিকেশন ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।আইফোনের ক্ষেত্রেও প্রজোয্য।

*#০৬# এন্ড্রয়েড গ্রাহকদের জন্য কোড।এঈ কোডের প্রয়োগে মোবাইলের আইএমইআই তথ্য জানা যাবে।

*#*#৪৬৩৬#*#* এই কোডের প্রয়োগ করলে মোবাইলের অয়াই-ফাই সিগন্যাল ,ব্যাটারি তথ্য জানতে পারবেন  এন্ড্রয়ে্ড গ্রাহকরা।

আরও পড়ুন  ফেসবুক ব্যবহার করতে যে নিয়ম মেনে চলা আবশ্যক।

*#*৭৭৮০#*#* এন্ড্রয়েড ফোনের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।এই কোড ফোনকে ফ্যাক্টরি সেটিং এ ফিরিয়ে নিয়ে যাবে।

গোপন কোড জেনে হয়ে যান মোবাইল এক্সপার্ট।এই আর্টিকেলটি শেয়ার করুন।

মোবাইল ফোন হোক শিক্ষা সহায়ক প্রযুক্তি।

 

মোবাইল ফোন দৈনন্দিন জীবনে গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রযুক্তির নাম।মোবাইল ফোন ছাড়া বর্তমানে কোনভাবেই প্রযুক্তিরি দিক দিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চিন্তা করতে পারিনা।মোবাইল ফোন আমাদের দৈনন্দিন জীবনের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

মোবাইল ফোন এখন কেবলই কথা যন্ত্র নয়।মোবাইল ফোন দিয়ে এখন আমরা অফিসের যাবতীয় কাজ সম্পাদন করে থাকি।মোবাইল ফোনের উন্নত সংস্করনের মাধ্যমে এখন ডকমেন্টারি ফাইল তৈরীতে কম্পিউটারের সাহায্য ছাড়া মোবাইলের মাধ্যমেই সম্ভব হচ্ছে গুগল নোট বা মোবাইল মাইক্রোসফট ব্যবহাররে মাধ্যমে।এছাড়াও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে খবরের কাগজ পড়া যায় খুব সহজে।মোবাইল ফোনের ব্যবহার করে এখন অজানা বিষয়ে সহজে ধারনা ন্ওয়া যায় গুগল থেকে।

মোবাইল ফোন এখন ‍শিক্ষা অর্জনের অন্যতম মাধ্যম।মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহার করে এখন শিক্ষার্থীরা খুব সহজেই পড়াশুনার অনেক জটিল সমাধান পেয়ে যায়।মুহুর্তের মধ্যেই সমাধান নিচ্ছে ইউটিউব বা গুগল থেকে।ইউটিউবে বর্তমানে পড়াশুনা বিষয়ক অনেক চ্যানেল রয়েছে।ছাত্র/ছাত্রীদের পড়াশুনার বিষয়ে পাঠ্য বইয়ের সঠিক সমাধান ও দকি নির্দেশনা মুলক এবং বিবিন্ন দেশের ভাষা শিক্ষা বিষয়ক ইউটিউব চ্যানেল বিদ্যমান। এসব চ্যানেল থেকে শিক্ষার্থীরা এখন অতি সহজে পড়াশুনার অত্যাধুনিক সুবিধা ভোগ করছে।

এই আর্টিকেলটি শেয়ার করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here