ড্রাগন ফলের বিস্ময়কর গুণাগুণ।

ড্রাগন ফলের বিস্ময়কর গুণাগুণ। এই ড্রাগন কোন রুপকথার কল্প কাহিনী বা জন্তু নয়।এই ড্রাগন একটি ফলের নাম।যার রয়েছে অসম্ভব সব উপকারী গুণ।জুলাই মাস থেকে এই ফল বাজারে পাওয়া যায়।যদিও বিদেশি ফল সুমিষ্ট হওয়ায় এই বাংলাদেশেও চাষ হচ্ছে।

S

ড্রাগণ ছাড়াও এই ফল রেড পিটায়া,স্ট্রবেরি পিয়ার,কন্ডেরেলা প্ল্যান্ট ইত্যাদি নামেও পরিচিত রয়েছে।ড্রাগন ফলের গাছ লতানো,মাংশল,খাজকাটা।কাঠ বা খুটি দিয়ে বেড়ে উঠতে পারে।

  • ড্রাগন ফল যেমন সুশ্বাদু তেমন এই ফলের রয়েছে ভেষজ ও ঔষধি গুণ।

ড্রাগন ফলের কয়েকটি গুণ নিয়ে আলোচনা করা হলোঃ

কোলেস্টেরলঃ ড্রাগোণ ফল কোলেশটেরল কমিয়ে হৃদযন্ত্র ভালো রাখতে সহযোগীতা করে।যারা ওজন কমাতে চান তাদের জন্য এই যথেস্ট ভালো কাজে দিবে।এই ফলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি,খনিজ লবন ও আশ থাকে।

ফাইবারঃ এই ফলে প্রচুর ফাইবার বা তন্তু থাকে।যুক্ত্রাজ্যের লিড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষনায় দেখা যায়,ফাইবারযুক্ত খাবার বেশি করে খেলে করোনারি হার্‌ট ডিজিজ ঝুকি কমায়।

ড্রাগন ফল ডায়েটারি ফাইবারের ভালো মাধ্যম।এটি উচ্চ রক্তচাপ কমাতে এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে।ড্রাগন ফলের আশ কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিকারক হিসেবে কাজ করে।ড্রাগন ফলের বিস্ময়কর গুণাগুণ।

অ্যান্টিঅক্সিডেন্টঃ  ড্রাগন ফলে প্রচুর ফাইটোনিয়াট্রিয়েন্ট থাকে,যা শরীরে প্রয়োজ্নীয় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট জোগাতে পারে।শরীরে ক্ষতিকর ফ্রি রেডিয়েকলসের বিরুদ্ধে লড়তে এটি দারুন উপকারী।

পটাশিয়ামঃ ড্রাগন ফলে প্রচুর পরিমাণে খনিজ উপাদান থাকে।বিশেষ করে হাড়ের জন্য উপকারী পটাশিয়াম ও ক্যালসিয়াম আছে এই ফলে।শরীরে স্নায়ুতন্ত্র ঠিক রাখতে এই ফল এর ভূমিকা রয়েছে।ড্রাগন ফলের বিস্ময়কর গুণাগুণ।

ভিটামিন সিঃ ড্রাগন ফল ভিটামিন সি’র জন্য দারুন উপকারী ।এতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে।ড্রাগন ফল আয়রনের ভালো উৎস।এটি দাত মজবুত রাখে ত্বক সতেজ রাখে।ভিটামিন ও খনিজ লবণ থাকায় এই ফল ডায়াবেটিসের উপকার করে।এছাড়া অ্যাজমা-ঠান্ডা-কাশি প্রতিরোধ করে,মানসিক অবসাদ দূর করে এবং ত্বক সুন্দর রাখতে সাহায্য করে।

আরও পড়ুনঃ অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী গাছের উপকারিতা। > http://sonalikantha.com/অ্যালোভেরা-বা-ঘৃতকুমারী/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here