বন্ধ হলো পর্ন সাইট।

বন্ধ হলো পর্ন সাইট। শিশু কিশোরদের মানসিক বিকাশ ধ্বংস করতে এবং স্বাভাবিক বেড়ে ওঠার জন্য মারাত্বক হুমকি পর্ণ সাইট গুলো।

ভিডিও গেমস খেলতে যাওয়া স্কুল পড়ুয়া শিশু কিশোর এর কম্পিউটারে সাজেষ্ট হচ্ছে পর্ণ সাইট।আর এসব পর্ণ সাইটে প্রবেশ করেই বিপথে চলে যাচ্ছে কিশোর কিশোরীরা।

এবার পর্ন সাইট গুলো নিষিদ্ধ করার স্বিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে নেপাল সরকার।

জানা যায় মাত্রাতিরিক্ত ধর্ষণ আর যৌণ হয়রানির কবল থেকে রক্ষা পেতে এই স্বিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার।

নেপালেন সরকার ২১ সেপ্টেম্বর এক বিবৃতির মাধ্যমে পর্ন সাইট বন্ধের বিষয়টি জানানো হয়।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, যৌন হিংসা ও বিকৃত কর্মে ইন্ধন যোগায় এমন সাইট গুলো বন্ধ করে দেওয়া হবে। এসব সাইট বন্ধে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, নেপালের আইন অনুযায়ী দেশটিতে কোন প্রকার কুরুচিকর ছবি বনানো বা সোস্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া দন্ডনীয় অপরাধ হিসেবে গন্য হয়।বন্ধ হলো পর্ন সাইট।

এদিকে বাংলাদেশের আইসিটি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার ঘোষণা দিয়েছেন সকলের জন্য নিরাপদ ইন্টারনেট নিশ্চিত করবেন।তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে প্রকাশিত বিভিন্ন পর্ণগ্রাফি প্রদর্শনকারী সাইটগুলো ব্লক করে দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ বসবাসের উপযুক্ত বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর ১০ টি শহর। http://sonalikantha.com/বসবাসের-উপযুক্ত-বিশ্বের/

শুধু তাই নয় শিশু কিশোরদের জন্য ইন্টারনেট একটি নিরাপদ মাধ্যম হিসেবে নিশ্চিত করার জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা  মাননীয় মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার ফেসবুক,ইউটিউবেও নজরদারি শুরু করেছেন।

ইতোমধ্যেই ইউটিউবে যৌণ উত্তেজনা মূলক ভিডিও প্রকাশের দায়ে ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির, ভাদাইম্মা সহ কয়েকজন কে গোয়েন্দা কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে সাবধান করে দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও ফেসবুক লাইভে আপত্তিকর অশালীন অঙ্গভঙ্গী ও যৌনতা ছড়ানোর অভিযোগে সানাই মাহবুব সহ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

পর্ণ সাইটগুলো বন্ধ হওয়ায় অভিভাবরা স্বস্তি প্রকাশ করছেন।এদিকে বাংলাদেশেও পর্ণ সাইট বন্ধের সিদ্ধান্ত হওয়ায় এবং ইন্টারনেটকে যৌনতা থেকে মুক্তির উদ্যোগ নেওয়ায় আইসিটি মন্ত্রণালয়ের প্রশংসা করছেন সবাই।

প্রযুক্তির এই যুগে পর্ণ সাইট ও যৌনতা মুক্ত অনলাইন মাধ্যম আমাদের সকলের জন্য নিরাপদ ও সহনীয়। শিশু ও কিশোর বয়সীদের এসব বিকৃত কর্ম থেকে নিরাপদ দুরত্বে রাখতে পর্ণ বন্ধের কোন বিকল্প নেই।

এছাড়া প্রপ্ত বয়স্ক যুবক যুবতিদের জন্যও পর্ণ মারাত্মক হুমকি।পর্ণগ্রাফি আসক্ত ব্যক্তি শারীরিক অসুবিধা ও মানসিক বিকারাগ্রস্থ হয়ে পড়েন।

পর্ণ আসক্ত হওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভয়াবহ হুমকি।এছাড়া ধর্মীয়ভাবে পর্ণ দেখা একটি অবৈধ কর্ম।পর্ণ আসক্ত ব্যক্তিকে পবিত্র ধর্ম ইসলাম অনুযায়ী পাপি হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here